1. protikkhonsangbad@gmail.com : Hannan Mia : Hannan Mia
  2. gourangabose@gmail.com : Gouranga Bose : Gouranga Bose
  3. jmitsolution24@gmail.com : support :
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৯:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখানে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে যুবকের মৃত্যু রাজশাহীতে ডিবি পুলিশের অভিযানে হেরোইন ও ফেনসিডিল সহ আটক ৪ গোপালগঞ্জে সদরে জাল টাকাসহ ব্যবসায়ী যুবক গ্রেফতার ক্ষমতাসীনদের ইশারায় মাদকের বিস্তার ও সারাদেশে লুটপাট হচ্ছে মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে চাচা-ভাতিজার লড়াই রাজশাহীর বাঘা হতে ১৬১ বোতল ফেন্সিডিলসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার করেছে। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাদারীপুরে ২৯ জন মনোনয়ন ফরম দাখিল রাজৈর উপজেলা প্রেসক্লাবের আয়োজনে ইফতার পার্টি ঐতিহ্যবাহী মিয়া বাড়িতে মাদরাসাতু আবেদ মিয়া আল-ইসলামিয়ার ভিত্তি প্রস্থার স্থপন রাজশাহীর বাঘায় সাংবাদিক কে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন থানায় অভিযোগ।

মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে চাচা-ভাতিজার লড়াই

  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪
  • ১৫৮ Time View

মো:সোহেল সিকদার  মাদারীপুর জেরা প্রতিনিধি:  আসন্ন মাদারীপুর সদর উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন দুইজন। তাদের মধ্যে সম্পর্ক চাচা-ভাতিজা। চাচা-ভাতিজার মধ্যকার এই লড়াইয়ে জিতবে কে- সেটা নিয়ে আগ্রহ সবার। এই দুই প্রার্থীর একজন হলেন- আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও  মাদারীপুর-২ আসনের আটবারের সংসদ সদস্য শাজাহান খানের জ্যৈষ্ঠ পুত্র আসিবুর রহমান খান। আসিবুর রহমান খান তিনি কেন্দ্রীয় যুবলীগের কার্যকরী সদস্য ও সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি। আরেক প্রার্থী হলেন- সংসদ সদস্য শাজাহান খানের চাচাতো ভাই জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পাভেলুর রহমান শফিক খান। তিনি এপির চাচাতো ভাই হলেও তিনি কিছুদিন হল দল বদল করে যোগ দিয়েছেন আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা- ৮ আসনের সংসদ সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম এর দলে। মাদারীপুরে এই দুইটি দলের রাজনৈতিক বিরোধ দীর্ঘদিনের। এছাড়া মাদারীপুরে জেলা আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ সহ কয়েকটি সংগঠনের নেতৃত্ব দেন আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম। ফলে চেয়ারম্যান প্রার্থী পাভেলুর রহমান শফিক খান পেয়েছেন তার স্থানীয় রাজনৈতিক দলের সমর্থন। তবে থেমে নেই এমপি পুত্র আসিবুর রহমান খানও। তিনিও তার পিতার রাজনৈতিক হাল ধরতেই মাঠে নেমেছেন। তার পিতা এমপি থাকার কারণে তিনিও পেয়েছেন তার দীর্ঘদিনের স্থানীয় রাজনৈতিক দলের সমর্থনও। ফলে কেউ কোন অংশে কম বলে মনে করছেন না ভোটাররা। এদিকে কেন্দ্রের নিষেধাজ্ঞা ছিল স্থানীয় কোন এমপি পুত্র কিংবা তার কোনো স্বজন উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবে না। অথচ এই দুই প্রার্থীই কেন্দ্রীয় নিষেধাজ্ঞাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছেন। এদিকে গত মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) সকালে জেলার নির্বাচন অফিসে লটারির মাধ্যমে প্রতীক বরাদ্দ করা হয়। এমপি পুত্র আসিবুর রহমান খান পেয়ছেন “আনারস” প্রতীক। এবং পাভেলুর শফিক খান পেয়েছেন “মোটরসাইকেল” প্রতীক। প্রতীক ঘোষণার পর থেকেই মাদারীপুর পৌরসভাসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের এলাকায় এলাকায় উভয় পক্ষের প্রতীকি মিছিল করতে দেখা গেছে। তবে শহরের অলিগলিসহ গ্রামের বিভিন্ন হাট বাজারের চায়ের দোকানে চা খেতে আসা আড্ডারত সাধারণ মানুষের মুখে একটাই প্রশ্ন? কে হচ্ছেন আগামীর চেয়ারম্যান। এনিয়ে চলছে নানা আলোচনা। তবে ভোটারদের দাবি, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চান তারা। এদিকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে মাঠে রয়েছেন তিনজন। তারা হলেন- মনিরুল ইসলাম তুষার ভূঁইয়া, এইচ এম মনিরুজ্জামান আক্তার হাওলাদার ও মো. বোরহান উদ্দিন বিতান। তবে মো. মোখলেছুর রহমান ও মো. জাহিদ হোসেন নামে দুই প্রার্থী নির্বাচনের প্রচার প্রচারনা চালালেও শেষ পর্যন্ত তারা তাদের প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫জন। তারা হলেন, ফারিহা হাছান রাখি, ডেইজী আফরোজ, মোসা. তাজনাহার, ফারজানা নাজনিন ও হেনা খানম। উল্লেখ্য, তফসিল ঘোষণা অনুযায়ী প্রথমধাপে ৮মে ভোট হওয়ার কথা রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2024